1. admin@dailygrambangla.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০১:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বঙ্গবন্ধু সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ প্রতিযোগিতায় ৩টি ক্যাটাগরিতেই ১ম স্থান মো. হানজালাল প্রধান  সোনারগাঁয়ে মহাসড়ক অবরোধ করে কিশোর গ্যাং ও ইভটিজারদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ঘুষ দুর্নীতির গডফাদার উমেদার আমজাদ এখন কোটিপতি বেড়ায় কুপিয়ে একটি পা বিচ্ছিন্ন করা হলো ব্যবসায়ীর সোনারগাঁ উপজেলা নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান হলেন মাহফুজুর রহমান কালাম বেড়ায় প্রস্তাবিত শেখ রাসেল শিশু পার্কের কাজ শুরু বেড়ায় সাবেক কাউন্সিলর রফিকুলের বিরুদ্ধে থানায় বাবার লিখিত অভিযোগ সোনারগাঁওয়ে আনারস প্রতীকের পক্ষে টাকা দেওয়ার সময় আটক-১ উপজেলা নির্বাচনে কালামের “ঘোড়া”সমর্থন দিলো কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতা ইঞ্জি.শফিকুল ইসলাম আমাকে ঠেকাতে চলছে অনেক ষড়যন্ত্র – মাহফুজুর রহমান কালাম

মাসুমদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের স্থায়ী ভবন নেই বারান্দায় বসেন সচিব

  • আপডেট : রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ১৬৯ বার পঠিত

হৃদয় হোসাইন-পাবনা:

একটি পৌরসভা আর ৯টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত পাবনার বেড়া উপজেলা।চাকলা,কৈটোলা,হাটুরিয়া নাকালিয়া,নতুন ভারেঙ্গা এই চার ইউনিয়ন বেড়া থানার আওতাধীন।জাতসাখিনি,পুরান ভারেঙ্গা,রূপপুর,মাসুমদিয়া,ঢালার চর এই পাঁচটি ইউনিয়ন আমিনপুর থানার আওতাধীন।১৯৭৩ সালে মাসুমদিয়া ইউনিয়ন হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হয়।সাম্প্রতিক জানায় যায় মাসুমদিয়া ইউনিয়ন যার জায়গাও স্থায়ী বহুতল কমপ্লেক্স ভবন নেই।যে যখন চেয়ারম্যান হয় সে তখন তার নিজের সুবিধা মতো নিজ এলাকায় কক্ষ ভাড়া নিয়ে চালায় পরিষদ কার্যক্রম।এতে পরিষদ থেকে সেবা পেতে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন স্থানীয় ব্যক্তিরা।২৮,৮৬ বর্গ কিলোমিটার আয়তনে ৯টি ওয়ার্ড এর ২৬,৪৮৫ জন জনসংখ্যা।১৮,৫৭০ জন ভোটার নিয়ে মাসুমদিয়া ইউনিয়ন গঠিত।বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদুল হক ২০১১ সাল থেকে ২০১৬ সাল পযন্ত আয়েনখার দোপ এলাকায় একটি কক্ষে চালিয়ে ছিলেন ইউপি কার্যক্রম।সাবেক চেয়ারম্যান মিরোজ হোসেন ১৮/০৭/২০১৬ থেকে ২০২২ সালের ৫ জানুয়ারি পযন্ত ৫৯ নং পুরান মাসুমদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কক্ষে চালিয়েছে ইউপি কার্যক্রম।২০২২ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে বর্তমান চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা শহিদুল হক(নেতা শহীদ)নির্বাচিত হয়ে আবার ও আয়েনখার দোপ এলাকার সেই কক্ষে চালাচ্ছেন ইউপি কার্যক্রম।কক্ষের ভেতরে চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যগণ এর বসার ব্যবস্থা।বারান্দায় একটি টেবিল নিয়ে বসেন সচিব।গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র থাকেন পরিষদ কক্ষে।স্থানীয় ব্যাক্তিরা বলেন,আমাদের ইউনিয়নে কোনো ভবন নেই এটা আমাদের জন্য অতি দু:খের একটি বিষয়।যে যখন চেয়ারম্যান হয় তার সুবিধার ক্ষেতে যে কোনো কক্ষে পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করে।সারা দেশের ইউনিয়নে বহুতল ভবন আছে শুধু মাসুমদিয়া পরিষদে নেই।উপজেলা প্রশাসনের কাছে আমাদের আকুল আবেদন ইউনিয়ন পরিষদে অনেক গুরুত্বর্পূণ কাগজ পত্র থাকে।নিদিষ্ট একটি জায়গায় বহুতল ভবন নিমার্ণ করা হোক।এ বিষয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদুল হক বলেন,আমার ইউনিয়ন টা চরাঞ্চল দিয়ে অনেক বড় ভোটা সংখ্যা অনেক।আমি স্থায়ী ভবন এর বিষয় আমি ঢাকা কথা বলেছি।সব দিক বিবেচনা করে জনগণের সুবিধা অনুযায়ী স্থায়ী একটি ভবন প্রয়োজন।একটি স্থায়ী ভবনে মাধ্যমে ইউনিয়নের জনগণের সেবা করতে চাই।আমি সহ সকল জনগণের দাবি একটি স্থায়ী বহুতল ভবনের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দেশ প্রকাশ ©
Theme Customized By Shakil IT Park