1. admin@dailygrambangla.com : admin :
শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
সোনারগাঁয়ে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে শীতবস্ত বিতরণ প্রায় দেড়যুগ বেড়া সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি নেই হতাশায় কর্মীরা নোয়াগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত জেসিআই ঢাকা পাইওনিয়ারের জেনারেল অ্যাসেম্বলি অনুষ্ঠিত সোনারগাঁয়ে প্রাথমিকের শিক্ষকের রাজনৈতিক শোডাউন…!  সোনারগাঁয়ে পৌষালি মেলা ও পিঠা উৎসব সোনারগাঁয়ে আওয়ামীলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে কর্মী সম্মেলন পন্ড, আহত -৩০ সোনারগাঁয়ে নাশকতা মামলার আসামীরা জামিনে এসে অস্ত্রের মহড়া এলাকাবাসী আতঙ্কে আঃলীগের কর্মী সম্মেলনে কবিরের নেতৃত্বে কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে বিশাল শোডাউন সোনারগাঁ পৌরসভা আঃলীগের কর্মী সম্মেলনে হোসাইন ও বাবুর নেতৃত্বে বিশাল মিছিল

বুয়েট শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার : ১৫ বন্ধু ৩ দিনের রিমান্ডে

  • আপডেট : শনিবার, ১৬ জুলাই, ২০২২
  • ৭৩ বার পঠিত

নিউজ ডেস্ক:- ঢাকা জেলার দোহার থানাধীন মৈনট ঘাটে তারিকুজ্জামান সানি (২৮) নামে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা হত্যা মামলায় তার ১৫ বন্ধুকে তিনদিন করে রিমান্ডে পাঠিয়েছেন আদালত।

শনিবার (১৬ জুলাই) মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা কুতুবপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই শামছুল আলম এ রিমান্ড আবেদন করেন। ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মনিরুজ্জামান শুনানি শেষে এ রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডের আসামিরা হলেন- শরীফুল হোসেন, শাকিল আহম্মেদ, সেজান আহম্মেদ, রুবেল, সজীব, নুরজামান, নাসির, মারুফ, আশরাফুল আলম, জাহাঙ্গীর হোসেন লিটন, নোমান, জাহিদ, এটিএম শাহরিয়ার মোমিন, মারুফুল হক মারুফ ও রোকনুজ্জামান ওরফে জিতু।

গত বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা জেলার দোহার থানাধীন মৈনট ঘাটে ১৫ বন্ধুর সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে নিখোঁজ হয় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী তারিকুজ্জামান সানি। বুয়েটের স্থাপত্য বিভাগের পঞ্চম সেশনের ছাত্র সানির বাবার নাম হারুন অর রশিদ। বাড়ি রাজধানীর হাজারীবাগে।

নিখোঁজ হওয়ার পর সানির সন্ধানে নামে ফায়ার সার্ভিস সদর দপ্তর থেকে ডুবুরি দল। ওইদিন রাতে রাতে অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তার সন্ধান পাওয়া যায়নি। পরে শুক্রবার বেলা ১১টা ২৬ মিনিটে মৈনট ঘাট থেকে ওই বুয়েট শিক্ষার্থী মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় শুক্রবার (১৫ জুলাই) বিকেলে সানির বড় ভাই হাসাদুজ্জামান একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ১০। ওই মামলায় আসামি করা হয় সানির সঙ্গে ঘুরতে যাওয়া অন্য ১৫ বন্ধুকে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে তাদের সবাইকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শনিবার আদালতে পাঠানো হয়।

সকালে ঢাকা জেলার দোহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তফা কামাল ঢাকা পোস্টকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার ১৫/১৬ যুবক একসঙ্গে পদ্মা নদীতে ঘুরতে যায়। সন্ধ্যার পর সানি নামে ওই বুয়েট শিক্ষার্থী নিখোঁজ হয়। রাতেই স্থানীয়দের দেওয়া খবরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দোহার থানা পুলিশ। এরপর ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। শুক্রবার সকালে সানির মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস ডুবুরি দল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দেশ প্রকাশ ©
Theme Customized By Theme Park BD