1. admin@dailygrambangla.com : admin :
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:১১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বেড়ায় ১৯৭১এর গণ হত্যার গণ কবর সংরক্ষণের দাবি মুক্তিযোদ্ধাদের কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ সম্পাদক পদ পাওয়ায় রকিবুল ইসলাম মারুফ কে সংবর্ধনা বাংলাদেশ প্রিন্টিং মাষ্টার এসোসিয়েশন এর প্রথম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন সোনারগাঁওয়ে বিএনপির ৫ নেতাকর্মী গ্রেফতার এমন ছাত্রলীগ আমরা চাই না : ওবায়দুল কাদের দেশে প্রথমবার হতে যাচ্ছে মেরুদণ্ড জোড়া লাগা শিশু আলাদা করার অস্ত্রোপচার মেঘনায় অবৈধ ড্রেজিংয়ে বালু উত্তোলন, আনন্দবাজার হাটসহ কয়েকটি গ্রাম ভাঙনের আশঙ্কা সিদ্ধিরগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবকলীগের ১০টি ওয়ার্ডের প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত বেড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি–সাধারণ সম্পাদক কে সংবর্ধনা বেড়ায় ১০০বিঘা জমিতে বাঙ্গি চাষে ব্যস্ত কৃষক

সোনারগাঁয়ে আওয়ামীলীগ বিএনপির সংঘর্ষ, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুর

  • আপডেট : বুধবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২২
  • ১৪৭ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে আষারিয়ারচর এলাকায় আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের কার্যালয়ের সামনে বিএনপির সাথে সংঘর্ষ’র ঘটনা ঘটেছে। একই ওয়ার্ডের বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
১৬ নভেম্বর বুধবার সন্ধ্যা পৌনে ৭ টার দিকে হামলা পালটা হামলা ও ভাংচুর করেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসী। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হামলায় পিরোজপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের কার্যালয়ে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাংচুর করে মাটিতে ফেলে রাখা হয়েছে। এ সময় অফিসের চেয়ার, টেবিল, ফ্যান ও লাইটসহ অন্যান্য আসবাবপত্র ব্যাপক ভাবে ভাঙচুর করা হয়।
অভিযোগ উঠেছে গত ১১ ই নভেম্বর পিরোজপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড থেকে সোনারগাঁ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম নান্নুর নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ঢাকায় যুবলীগের মহাসমাবেশে অংশ নেয়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে সোনারগাঁ উপজেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ এর হুকুমে পিরোজপুর ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ন-আহ্বায়ক আব্দুল জলিল, পিরোজপুর ইউনিয়ন ৬ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি বাবুল বেপারি ও পিরোজপুর ইউনিয়ন যুবদলের সদস্য সবুর খান এর নেতৃত্বে অতর্কিতভাবে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে।
ঘটনাকালে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে আগামী ১০ ডিসেম্বরের পরে ৬ নং ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের কাউকে তারা এলাকায় থাকতে দিবে না বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়।
এ বিষয়ে জাতীয় শ্রমিকলীগের মেঘনা শিল্পাঞ্চল শাখার যুগ্ম-আহবায়ক ও একই ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য এম এ হালিম জানান, গত ১১ নভেম্বর ঢাকায় যুবলীগের মহাসমাবেশে আমাদের এলাকা থেকে বিপুল সংখ্যক আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা অংশগ্রহণ করেন। তারপর থেকেই সাধারণ সমর্থকদের সাথে দেখা হলে বিএনপি নেতারা হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে। আগামী ১০ ডিসেম্বরের পর আমরা কিভাবে এলাকায় থাকবো তারা দেখে নেবে বলে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে। এরই জের ধরে আজ আমাদের কার্যালয় ভাংচুর করেছে।
এ বিষয়ে একই এলাকার বাসিন্দা ও সোনারগাঁ থানা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রউফ জানান, আমাদের সাথে আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মীর কথা-কাটাকাটিও হয়নি। আওয়ামীলীগের কার্যালয়ের সামনে আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রাফসান টেলিকমে আমরা বসে ছিলাম। হালিম মেম্বারের নেতৃত্বে হঠাৎ তার সাঙ্গপাঙ্গরা আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে আমার ভাই জলিল, সবুর খান ও বাবুলকে হাতুড়ি দিয়ে পেটাতে থাকে। এক পর্যায়ে তারা আমার ভাইয়ের হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয়। আব্দুর রউফ বলেন, আমার ভাই পিরোজপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক, আমরা বিএনপির রাজনীতি করি বলে প্রথমে তারাই আমাদের উপর হামলা চালায়। তিনি বলেন, আমরা ভাংচুর করলাম কখন? আমরাতো হাসপাতালে দৌড়াদৌড়ি করেই সময় শেষ! ভাংচুরের বিষয়টি আওয়ামীলীগ নেতাদের নাটক বলেও তিনি দাবী করেন।
সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুব আলম সুমন জানান, আমি নিজে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দেশ প্রকাশ ©
Theme Customized By Theme Park BD