1. admin@dailygrambangla.com : admin :
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৩৮ পূর্বাহ্ন

সোনারগাঁয়ে হেরিটেজ পলিমার এ্যান্ড ল্যামিটিউব কোম্পানীর কর্মকর্তার নিকট চাঁদা দাবীর অভিযোগ

  • আপডেট : শনিবার, ১৮ জুন, ২০২২
  • ১৬২ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক:-

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে আল মোস্তফা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান হেরিটেজ পলিমার এ্যান্ড ল্যামিটিউব কোম্পানীর কর্মকর্তা কামাল হোসেনের নিকট ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী ও মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের দুধঘাটা গ্রামে অবস্থিত আল মোস্তফা গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের ক্রয়কৃত নিজস্ব সম্পত্তির মধ্যে ভবন নির্মাণের সয়েল টেষ্ট কাজ করাকালীন সময়ে দুধঘাটা গ্রামের শাহাদাত ভূঁইয়ার ছেলে মজিবর রহমান, ওয়াহিদ মিয়ার ছেলে মোঃ বদু, মজিবর রহমানের ছেলে সুমন, গিয়াস উদ্দিনের ছেলে আসাদুল, জাহেদ আলীর ছেলে মাহাবুব, মজিবর রহমানের ছেলে মেজু, ফজর আলীর ছেলে আল আমিনসহ আরও ১০/১৫ জন অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা উক্ত কোম্পানীর কর্মকর্তা কামাল হোসেনের নিকট দীর্ঘদিন ধরে ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে আসছিলো। সন্ত্রাসীদের দাবীকৃত চাঁদার টাকা দিতে অপারগতা জানালে তারা কোম্পানীর নির্মাণ কাজে বাঁধা প্রদান করে সেখানকার নির্মাণ শ্রমিকদেরকে ভবন নির্মাণে বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি ও বাঁধা প্রদান করে।

এদিকে গত ১৭ জুন শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় অভিযুক্তরা কোম্পানীর কর্মকর্তা কামাল হোসেনের নিকট তাদের দাবীকৃত চাঁদা চেয়ে না পেয়ে অভিযোগের ১নং আসামী মজিবর রহমানের নের্তৃত্বে অন্যান্য অভিযুক্ত সন্ত্রাসীরা বিভিন্ন দেশীয় ধারালো অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে কোম্পানীর বাউন্ডারীর সীমানার ভিতর প্রবেশ করে পূণরায় ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। এরপরও সন্ত্রাসীরা তাদের দাবীকৃত চাঁদা চেয়ে না পেয়ে কোম্পানীর কর্মকর্তা কামাল হোসেনের মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে সেখানে কর্মরত ইঞ্জিনিয়ার মোন্তাজ উদ্দিনসহ অন্যান্য নির্মাণ শ্রমিকদের মারধর করে ও প্রাণনাশের হুমকী দিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয় এবং চাঁদার টাকা না দিলে কোম্পানীর কর্মকর্তা কামাল হোসেনকে সেখানে কোনো কাজ করতে দিবে না বলে হুমকী প্রদান করে কোম্পানীর ভিতরে থাকা বিভিন্ন মেশিনপত্রসহ অন্যান্য মালামাল জোরপূর্বক নিয়ে চলে যায়। যার মূল্য ১৪ লক্ষ টাকা।

এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী কামাল হোসেন জানান, স্থানীয় ও অভিযুক্ত সন্ত্রাসীদের দাবীকৃত মোটা অংকের চাঁদা দিতে পারিনি বলে তারা সেখানে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। এমতাবস্থায় আমি অনেকটা নিরাপত্তাহীণতায় রয়েছি এবং কারখানার নির্মাণ কাজ করতে না পারলে বিশাল ক্ষতি হয়ে যাবে আমার।

সোনারগাাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, এব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দেশ প্রকাশ ©
Theme Customized By Theme Park BD