1. admin@dailygrambangla.com : admin :
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:০৩ অপরাহ্ন

সোনারগাঁওয়ে পঞ্চমীঘাট বাজারের সরকারি রাস্তা দখল করে দোকান নির্মাণ

  • আপডেট : শনিবার, ১৯ মার্চ, ২০২২
  • ৮১ বার পঠিত

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে ঐতিহ্যবাহী পঞ্চমীঘাট বাজারের সরকারি জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্থানীয় প্রভাবশালী মহল এসব কাজ করছেন। এ নিয়ে সরকারী বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করা হলেও উচ্ছেদ করা হয়নি অবৈধ স্থাপনা।

দীর্ঘ সময় ধরে সরকারী রাস্তা দখলমুক্ত করতে স্থানীয় প্রশাসন তেমন কোন ভুমিকা পালন করেনি বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয়রা।

শুক্রবার (১৮ই মার্চ) বিকেলে ওই এলাকায় সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, সরকারি ও খাস জায়গায় তিনটি নতুন আধা-পাকা দোকান ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে।

এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানান, উপজেলা সাদিপুর ইউনিয়নের নয়াপুর-পঞ্চমীঘাট সড়কের পাশেই সড়ক ও জনপথের সরকারি জায়গা দখল করে গুলনগর গ্রামের খালেক মিয়ার ছেলে আব্দুর রহিম ও নানাখী গ্রামের দিলভরের ছেলে আওয়াল মিয়া দুইজনে তিনটি দোকান বালুর বেড ও পাকা দোকান ঘর নির্মাণ করছেন।

এতে একদিকে সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব অপরদিকে সড়কে যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। দীর্ঘ সময় ধরে সরকারী রাস্তা দখলমুক্ত করতে স্থানীয় প্রশাসন তেমন কোন ভুমিকা পালন করেনি বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয়রা।

সম্প্রতি সাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন ভূমি অফিসের বাঁধাকে উপেক্ষা করে পঞ্চমীঘাট বাজারের রাস্তার উপরে জোরপূর্বক দখল করে দোকান ঘর নির্মাণ করেন। এতে করে বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। ব্যবসায়ীরা মনে করেন তার দেখাদেখি অন্যান্যরাও বাজারে থাকা সরকারি খাস জায়গায় আরো দোকান নির্মাণ করবেন।

পঞ্চমীঘাট বাজারের কমিটির সদস্যরা বলেন, এই জায়গাটিতে গত পাঁচ বছর আগেও এখানে বিল্ডিং নির্মাণ করা হয়েছিলো। খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন এসে ওই বিল্ডিং ভেঙে দিয়েছে। এখন আবার খাস জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণ করা হচ্ছে। ব্যবসায়ীরা জানান, জানিনা বাজারে থাকা খাস জায়গা দখল করে কোন সময় কে দোকান নির্মাণ করে।

এ ব্যাপারে সাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ মোল্লা বলেন, জায়গাটি সরকারি খাস জায়গা। তাই আমি আব্দুর রহিম ও আওয়ালকে এখানে দোকার না করার কথা বলেছি। তিনি বলেন, সে যদি সরকার থেকে লীজ এনে দোকান নির্মান করে তাহলে আমাদের কোন আপত্তি নেই।

এ ব্যাপারে দোকার নির্মানকারী আব্দুর রহিম সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আমি অবৈধভাবে সরকারি জায়গা দখল করেনি। যথাযথ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে লীজের জন্য আবেদন করেছি। যা বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তফা মুন্নাহ জানান, নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদি কাজ চলমান থাকে তাহলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) তৌফিক এলাহি বলেন,সরকারি কোনো নিয়মনীতির বাইরে কোনো কাজ আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। উপজেলা ভূমি কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে অবৈধ নির্মান কাজ যেন বন্ধ করে দেয়া হয়। কেউ যদি জোরপূর্বক সরকারি জায়গায় দোকান নির্মান করে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো: মঞ্জুরুল হাফিজ বলেন, সরকারী জায়গায় লিজ ব্যতিত কেউ নির্মাণ কাজ করতে পারবেনা। এ ব্যাপারে আমি খবর নেয়ার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে নির্দেশ দিয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দেশ প্রকাশ ©
Theme Customized By Theme Park BD