1. admin@dailygrambangla.com : admin :
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
বেড়ায় প্রস্তাবিত শেখ রাসেল শিশু পার্কের কাজ শুরু বেড়ায় সাবেক কাউন্সিলর রফিকুলের বিরুদ্ধে থানায় বাবার লিখিত অভিযোগ সোনারগাঁওয়ে আনারস প্রতীকের পক্ষে টাকা দেওয়ার সময় আটক-১ উপজেলা নির্বাচনে কালামের “ঘোড়া”সমর্থন দিলো কেন্দ্রীয় আ’লীগ নেতা ইঞ্জি.শফিকুল ইসলাম আমাকে ঠেকাতে চলছে অনেক ষড়যন্ত্র – মাহফুজুর রহমান কালাম বন্দরে মদনপুর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি রুহুল আমিন বহিষ্কার  বেড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বাবু’র হেলিকপ্টার প্রতীকের গণজোয়ার হুমকি ধমকি ও রক্তচক্ষুকে আমরা ভয় পাইনা: মাকসুদ হোসেন সাংবাদিকের বাড়িতে মাদক ব্যবসায়ী ও কিশোর গ্যাং এর হামলা ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের উপ-বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক- হলেন সোনারগাঁয়ের আবু কাওসার

সোনারগাঁয়ে চেয়ারম্যান জিন্নাহ’র উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন

  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৭ মার্চ, ২০২২
  • ১৪৬ বার পঠিত

নিউজ ডেস্ক:

সোনারগাঁয়ে সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ’র উদ্যোগে স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২ তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস পালন করা হয়েছে। বৃস্পতিবার (১৭ মার্চ) সনমান্দী ইউনিয়নের বঙ্গবন্ধু লাইব্রেরি মাঠে এ অনুষ্ঠানের করা হয়।

আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন- সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার আমিনুল হক, সনমান্দী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহসভাপতি হাজী জসীমউদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা গোলজার হোসেন,সনমান্দী ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি মোঃজামাল হোসেন,সোনারগাঁ উপজেলা কৃষকলীগের সহ-সভাপতি মতিন,সনমান্দী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য দেলোয়ার হোসেন, সনমান্দী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য সোলাইমান হোসেন সুজন।

সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ বলেছেন, পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চিন্তা করলেন একদিন বাংলার মানুষকেই এই বাংলার ভাগ্য নিয়ন্ত্রক হতে হবে। তিনি সেই লক্ষ্যে কাজ করে গিয়েছেন।

সেই লক্ষ্যে তিনি প্রথমে ছাত্রলীগ, আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠার পরে ভাষা আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে তিনি তার লক্ষ্যে এগিয়ে গিয়েছেন। সেই পথ পাড়ি দিতে গিয়ে তিনি ১৩টি বছর কারাগারের অন্ধকার প্রকোষ্ঠে কাটিয়েছেন, তবুও আপস করেননি। তিনি ছিলেন আপসহীন নেতা।

আরো বলেন, জাতীর জনক ১৯৭১ এর ৭ই মার্চ একটি ভাষণের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতীকে একত্র করেছিলেন বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন বিচক্ষণ নেতা। তার মতো নেতা বিরল। তিনি যা বিশ্বাস করতেন তাই তিনি করতেন। তিনি তার বিশ্বাসের সাথে কখনো আপস করেননি।

পাকিস্তানের যে সরকারই ক্ষমতায় এসেছিল সেই সরকারই তাকে কারাগারে নিয়েছিল। ১৯৭১ এ পাকিস্তানের মেওন আলী কারাগারে যখন বন্দি তখন তাকে কারাগারের মধ্যে ফাঁসি দেওয়ার জন্য কবরের পাশে দাঁড় করিয়েছিল। তখন তিনি বলেছিলেন আমি কবরকে ভয় পাই না। তোমরা আমাকে ফাঁসি দেবে, দাও। আমি জানি যে বাংলার দামাল ছেলেরা মৃত্যুকে আলিঙ্গন করতে পারে সেই জাতিকে কেউ দাবিয়ে রাখতে পারে না।

আরো উপস্থিতি ছিলেন, সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদ ৫নং ওয়ার্ড সদস্য ইব্রাহিম, ৭নং ওয়ার্ড সদস্য হাজি এস এম আলমগীর, ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার জয়নাল আবেদীন,  আওয়ামীলীগ নেতা খোরশেদ মোল্লা, সোনারগাঁ উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক আবু সিদ্দিক, সোনারগাঁ উপজেলার ছাত্রলীগের সহসভাপতি হাসানুজ্জামান কিরণ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিয়ন সুমন, উপ আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, আইন বিষয়ক সম্পাদক সজিব, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ সোহান মোল্লা প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ © দেশ প্রকাশ ©
Theme Customized By Shakil IT Park